মঙ্গলবার, ১৯-জুন ২০১৮, ১০:০৫ অপরাহ্ন
  • অপরাধ
  • »
  • যেভাবে ৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করেন মাদ্রাসা শিক্ষক

যেভাবে ৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করেন মাদ্রাসা শিক্ষক

sheershanews24.com

প্রকাশ : ০৯ মার্চ, ২০১৮ ১১:২৩ পূর্বাহ্ন

শীর্ষনিউজ, ঢাকা: রাজধানীর কদমতলীতে মাদ্রাসার এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে নয় বছরের এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক মুফতি আলাউদ্দিনকে (৩৭) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই শিশুকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

শিশুটির চাচা জানান, ওই ছাত্রী কদমতলী এলাকার একটি মাদ্রাসায় পড়ত। গত ১ মার্চ দুপুর ১২টার দিকে মাদ্রাসাটির অধ্যক্ষ মুফতি আলাউদ্দিন তৃতীয় তলায় তার কক্ষে ডেকে নেন শিশুটিকে। সেখানে শিশুটিকে ধর্ষণ করেন তিনি। এরপর তিনি ওই ছাত্রীকে হুমকি দেন এই বলে যে, ‘তুমি যদি ধর্ষণের কথা কাউকে বলো, তাহলে তুমি পাগল হয়ে যাবে।’

এ ঘটনার পর বাসায় ফিরে যায় শিশুটি। ওই দিনের পর থেকে মাদ্রাসায় যাওয়ার কথা বললেই শিশুটি কান্নাকাটি করত কিন্তু কান্নার কারণ জানাত না। গত মঙ্গলবার শিশুটির দাদি কান্নাকাটির কারণ জানতে চাওয়ার একপর্যায়ে সে সবকিছু খুলে বলে। ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে মাদ্রাসার ওই শিক্ষককে এলাকাবাসী আটক করে থানায় সোপর্দ করে।

শিশুটির চাচা আরো জানান, পাঁচ বছর আগে বাবা মারা যায় শিশুটির। পরে তার মা আরেকটি বিয়ে করে আলাদা থাকতে শুরু করেন। শিশুটির আরেকটি সাত বছর বয়সী ভাই আছে, যে জন্ম থেকেই অন্ধ। এ দুই ভাইবোন চাচা ও দাদির সঙ্গেই থাকে।

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল জলিল জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিশুটির পরিবার থেকে একটি মামলা (নম্বর ২৩) করা হয়। আজ শুক্রবার অভিযুক্ত শিক্ষককে আদালতে পাঠানো হবে। পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে বলেও জানান তিনি।

শীর্ষনিউজ/এইচএস