রবিবার, ২৪-জুন ২০১৮, ০৭:০০ অপরাহ্ন
  • রাজনীতি
  • »
  • সরকারের গুম-খুনে ঈদের আনন্দ ম্লান হতে চলেছে: ড. মাসুদ

সরকারের গুম-খুনে ঈদের আনন্দ ম্লান হতে চলেছে: ড. মাসুদ

sheershanews24.com

প্রকাশ : ১৩ জুন, ২০১৮ ০৮:৪৪ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ, ঢাকা : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সেক্রেটারী ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ বলেছেন, জনগণের মৌলিক অধিকার পূরণের দায়িত্ব সরকারের হলেও বর্তমান সরকার সে দায়িত্ব পালনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। দেশের নাগরিকরা আজ তাদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত। আনন্দ আর খুশির বার্তা নিয়ে প্রতি বছর আমাদের মাঝে ঈদ আসলেও দেশের বিরাট সংখ্যক জনগোষ্ঠী সে আনন্দ থেকে বঞ্চিত থাকে। অসহায় দরিদ্রদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণের দায়িত্ব হল সরকারের। সরকারের দায়িত্ব আজ আমাদেরকে পালন করতে হচ্ছে। অথচ সরকার ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করতে গুম-খুনে এতই ব্যস্ত যে দেশের অসহায় মানুষের খবর নেয়ার সময়টুকুও তারা পাচ্ছে না।

বুধবার জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কদমতলী পশ্চিম থানার উদ্যোগে আয়োজিত গরীব দুঃস্থদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। থানা আমীর ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের মজলিসে শুরা সদস্য মাওলানা আমীরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য আব্দুস সবুর ফকির এছাড়াও আরোও উপস্থিত ছিলেন থানা সেক্রেটারি মোঃ মনির হোসেন, জামায়াত নেতা লোকমান হোসেন, মতিউর রহমান চপল, ওমর ফারুক প্রমুখ।

ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ বলেন, আর কয়েকদিন পরই মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। দলীয় সন্ত্রাস, আইন-শৃংখলা বাহিনীর বিচার বহির্ভূত হত্যা ও গুমের পাশাপাশি রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে মানুষের মাঝে আজ চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। ফলে জনসাধারণের ঈদ প্রস্তুতিতে ভাটা পড়েছে এবং ঈদের আনন্দ ম্লান হতে চলেছে। অথচ সেদিকে সরকারের কোন খেয়াল নেই। তারা জনসেবা বাদ দিয়ে রাজনৈতিক দমন-পীড়ন ও লুটপাটে ব্যস্ত। বাংলাদেশে আজ ইসলামী সমাজ ব্যবস্থা কায়েম না থাকায় অসহায় গরীব মানুষদেরকে আজ ঈদ সামগ্রীর জন্য লাইনে দাঁড়াতে হচ্ছে। ইসলামী সমাজ ব্যবস্থা কায়েম হলে রাষ্ট্রের পক্ষ থেকেই ঈদ সামগ্রী দরিদ্র মানুষের বাড়িতে পৌঁছিয়ে দেয়া হবে। এ জন্য ইসলামী সমাজ বিনির্মাণে সকলকে তিনি এগিয়ে আসার আহবান জানান।
শীর্ষনিউজ/বিজ্ঞপ্তি/ওআর